আধ্যাত্মিক সংখ্যা আট

তিনের মত আরো একটি প্রভাব বিস্তারকারী সংখ্যা। পার্থক্য হল এর প্রভাব বিস্তারের জায়গা গুলো খুব জটিল এবং আনকমন। চলুন, তাহলে কথা না বাড়িয়ে ঘুরে আসি সেইসব জটিল জায়গা থেকে।

অক্টোপাসের শুড়ের সংখ্যা ৮টি, মাকড়সার পায়ের সংখ্যা ৮ টি, এছাড়া বিছা (Scorpion) এর পায়ের সংখ্যাও ৮ টি ।সাধারণত একটি ছাতার আট টি পাজর থাকে। দাবা খেলায়, প্রত্যেকটি খেলয়াড়ের আট টি সিপাহি থাকে। দাবা বোর্ড ৮ বাই ৮।

একটি ঘনকের ৮ টি কোণা বা শীর্ষবিন্দু থাকে । একটি অষ্টভুজ এর ৮ টি বাহু থাকে এবং একটি Octahedron (আটটি সমান বাহু বিশিষ্ট ঘনক্ষেত্র) এর থাকে ৮ টি ত্রিভুজাকৃতির তল।

আমাদের শরীরে ২টি করে হাত,পা,কান,চোখ আছে=মোট ৮টি।যে কোন তারিখ প্রকাশ করতে গেলে আপাতত ৮টি ডিজিটের দরকার পড়ে। যেমন:২৬-০৮-২০১৮
কোন মানুষকে ধ্বংস করার ৮টি পর্যায় আছে,৮টি ধাপ। একে অষ্টিধিক বন্ধোনম বলা হয়।

৮টি পর্যায়,কীর্তি-বুদ্ধি-ক্ষমতা-আবেগ-সাহস-পয়সা-নৈতিকতা। আর যে এই ৭ভাবে ধ্বংস হবে তার বেচে থাকা আর মরে যাওয়া একই কথা।মৃত্যু তো উপরাল্লাহর হাতে। কিন্তু এই ৭টা মানুষের দ্বারা ধ্বংস সম্ভব।

নিজেকে সকল ধরণের অবনতি বিশেষ করে শারীরিক অবনতি থেকে দূরে রাখতে প্রতিদিন “প্রাণায়ম” করা খুব ই গুরুত্বপুর্ণ। যোগশাস্ত্রীদের মতে ‘হঠযোগ-প্রদীপিকা’ (Hatha Yoga Pradipika) গ্রন্থে উল্লেখিত লঘু প্রাণায়াম আট ধরনের। যথা- সূর্যভেদ-উজ্জায়ী-সীৎকারী-শীতলী-ভ্রামরী-ভস্তিকা-মূর্চ্ছা-প্লাবনী।

সম্পদ ও সমৃদ্ধির দেবী লক্ষ্মীর আটটি রূপ রয়েছে যা অষ্ট লক্ষ লক্ষ হিসাবে পরিচিত এবং উপাসনা করেন:

“মহা-লক্ষ্মী, Dhana-লক্ষ্মী, ধন্য-লক্ষ্মী, Gaja-লক্ষ্মী, শান্তানা-লক্ষ্মী, ভিরা-লক্ষ্মী, বিজয়-লক্ষ্মী ও বিধি-লক্ষ্মী। আটটি নিধি, অথবা হিন্দুধর্ম অনুযায়ী সম্পদ আসন আছে। অষ্ট-দীপপাল নামে পরিচিত নির্দেশাবলীর আটজন অভিভাবক আছেন। সেন্ট Madhvacharya দ্বারা প্রতিষ্ঠিত আট হিন্দু মঠ, ভারত জনপ্রিয় Udupi এর Ashta Mathas নামে পরিচিত।

বৌদ্ধধর্মে, 8-স্পোকড ধর্মমাক্ররা নোবেল আট্টল্ড পাথ প্রতিনিধিত্ব করে। ধর্মচক্র, একটি বৌদ্ধ প্রতীক, আট spokes আছে। বুদ্ধের প্রধান শিক্ষানীতি – চারটি নোবেল সত্য – নোবেল আটটি পথ হিসাবে বুদ্ধিমান এবং বুদ্ধ আটটি অর্জন বা জনাহের গুরুত্বকে জোর দিয়েছেন।

মহায়ণ বৌদ্ধধর্মে, আটটি বৃহৎ পথের শাখা আটটি বৃহৎ Bodhisattvas দ্বারা গঠিত হয়: (মনজুস্রি, Vajrapani, Avalokiteśvara, মৈত্রেয়া, Ksetigarbha, Nivaranavishkambhi, Akasagarbha, এবং সামন্তভূদ্র)। পরবর্তীতে (বিতর্কিত) যোগোগাড়ার চিন্তাধারার স্কুল অনুসারে আটটি চেতনাগুলির সাথে সম্পর্কিত: পাঁচটি ইন্দ্রিয়, চেতনা, চেতনা, এবং অজ্ঞানতা – “চেতনা” বা “দোকান-ঘর চেতনা” (আলায়-বিজনন) )। জ্ঞানের “অপরিবর্তনীয়” রাষ্ট্র, কোন পর্যায়ে একটি Bodhisattva “autopilot” উপর যায়, আটটি গ্রাউন্ড বা ভূমি।

সাধারণভাবে, “আট” বৌদ্ধদের জন্য একটি শুভ সংখ্যা বলে মনে হয়, যেমন, “আটটি পবিত্র প্রতীক” (গহনা-সংকীর্ণ প্যারাসোল; সোনারফিশ (সর্বদা একটি জোড়া হিসাবে দেখানো হয়, যেমন, মিনারের গ্লিফ); স্ব- অ্যামফোরা পুনঃনির্মাণ করা, সাদা কামাল কমল-ফুল, সাদা শঙ্কু; শাশ্বত (সেল্টিক-শৈলী, অসীম লুপিং) গিঁট; সাম্রাজ্য বিজয়ের ব্যানার; আটটি স্পোকড চাকা যা রাষ্ট্রের জাহাজকে নির্দেশ করে বা বুদ্ধের শিক্ষাকে প্রতীক করে। )। একইভাবে, বুদ্ধের জন্মদিন চীনা ক্যালেন্ডারের চতুর্থ মাসের 8 তারিখে পড়ে।

ইসলাম ধর্মে বলা হয় আল্লাহ-র সিংহাসন বহনকারী ফেরেশতাগণের সংখ্যা আট, যা একইসাথে স্বর্গের দরজার সংখ্যা।

এবার সাংখ্যিক জগতে দেখি কি অবস্থা!!!
সংখ্যা ৮ সর্বনিম্ন অ-আবেলি গ্রুপের ক্রম যার সবকটি উপগোষ্ঠী স্বাভাবিক।

octonions মাত্রা এবং একটি আদর্শ বিভাগ বীজগণিত সর্বোচ্চ সম্ভাব্য মাত্রা হয়।
প্রথম সংখ্যাটি আলাদা আলাদা আলাদা আলাদা আলাদা আলাদা সংখ্যা; বিচ্ছিন্ন 10, এবং বর্গাকার সংখ্যা 49।
একটি সংখ্যা 8 দ্বারা বিভক্ত হয় যদি তার শেষ তিনটি সংখ্যা, দশমিকতে লেখা হয়, 8 দ্বারা ভাগ করা যায়, বা তার শেষ তিনটি সংখ্যা 0 বাইনারিতে লেখা হয়।একমাত্র কিউব যার সাথে

১ যোগ করলে একটা বর্গ সংখ্যা পাওয়া যায় !
2³ = 8 (Eight) এবং 2³ + 1 = 8 + 1 = 9

যিশুখ্রিস্টের জন্মের আগে গ্রীক এবং রোমদের সপ্তাহ হিসাব করা হত ৮ দিনে।
একটি যৌগিক সংখ্যা, তার যথাযথ divisors 1, 2, এবং 4 হচ্ছে। এটা দ্বিগুণ 4 বা 4 বার 2। দুটি শক্তি, ২3 (দুই cubed), এবং ফর্ম 3 এর প্রথম সংখ্যা, পিটি এর চেয়ে পূর্ণ পূর্ণসংখ্যা। প্রথম সংখ্যা যা না প্রধান বা semiprime হয়।

অকটাল সংখ্যা সিস্টেমের বেস, যা বেশিরভাগ কম্পিউটারের সাথে ব্যবহার করা হয়। Octal মধ্যে, এক অঙ্ক তিন বিট প্রতিনিধিত্ব করে। আধুনিক কম্পিউটারে, একটি বাইট আটটি বিট একটি গোষ্ঠী হয়, এছাড়াও একটি অক্টেট বলা হয়।

একটি Fibonacci সংখ্যা, 3 প্লাস 5। পরবর্তী Fibonacci নম্বর 13. 13. 8 শুধুমাত্র একক ইতিবাচক Fibonacci নম্বর, 1 পাশে, যে একটি নিখুঁত ঘন। [1] মিহাইলসকুর থিওরেম দ্বারা অন্য এক নিখুঁত শক্তি থেকে একমাত্র নানজারো নিখুঁত শক্তি।

সপ্তসুর এর নাম শুনেছেন নিশ্চয়ই । সা, রে, গা, মা, পা, ধা, নি । এই ৭ টি কে বলা হয় সপ্তসুর । কিন্তু, কোথাও একটা কি যেন বাদ পড়ে গেল !
এই সপ্তসুরের শেষে একটা “সা” হবে । আপনি যদি শুধু এই সপ্তসুর পর্যন্ত গেয়ে শেষ করেন তাহলে কিন্তু সুরটা অসম্পুর্ন থেকে যাবে ! শেষে “সা” বললে বিপদটা থেকে উদ্ধার পাবেন !

তাই, একে সপ্তসুর না বলে অষ্টসুর বলা হয় । অষ্টসুরের দুই ধরণের স্কেল থেকে । একটি নিম্ন (সা..রে..গা..মা) অপরটি উচ্চ (পা..ধা..নি..সা) এবং মাঝখানে রয়েছে কিছুটা বিরতি !
শেষ করব সংখ্যা ৮-র একটি অদ্ভুদ জাদু দিয়ে।

১ × ৮+১ = ৯
১২ × ৮+২ = ৯৮
১২৩ × ৮+৩ = ৯৮৭
১২৩৪ × ৮+৪ = ৯৮৭৬
১২৩৪৫ × ৮+৫ = ৯৮৭৬৫
১২৩৪৫৬ × ৮+৬ = ৯৮৭৬৫৪
১২৩৪৫৬৭ × ৮+৭ = ৯৮৭৬৫৪৩
১২৩৪৫৬৭৮ × ৮+৮ = ৯৮৭৬৫৪৩২
১২৩৪৫৬৭৮৯ × ৮+৯ = ৯৮৭৬৫৪৩২

Invest in Social

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *